শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ০২:৪৪ অপরাহ্ন

মণিরামপুরে মামলা-হামলার ভয় দেখিয়ে ফের ঘের নিতে মরিয়া সিরাজ মোল্যা, জমি মালিকদের লীজের চুক্তিনামায় স্বাক্ষর করতে হুমকি-ধামকির অভিযোগ

মণিরামপুরে মামলা-হামলার ভয় দেখিয়ে ফের ঘের নিতে মরিয়া সিরাজ মোল্যা, জমি মালিকদের লীজের চুক্তিনামায় স্বাক্ষর করতে হুমকি-ধামকির অভিযোগ

Spread the love

মণিরামপুর (যশোর) প্রতিনিধি :

জমি লীজের চুক্তির মেয়াদ শেষ হলেও আবারো জমি মালিকদের ভয়-ভীতি দিয়ে মাছের ঘের করতে মরিয়া উঠেছেন সিরাজ মোল্যা নামের এক প্রভাবশালী। মণিরামপুর উপজেলার সনাতন ধর্মাবলী অধ্যুষিত কুলটিয়া ইউনিয়নের আলীপুর-গোবরডাঙ্গা ও নেহালপুর গ্রামের মধ্যে বর্তী গোবরডাঙ্গা বিলের জমি মালিকদের মামলা-হামলার ভয় দেখানোর অভিযোগ উঠেছে সিরাজ মোল্যার বিরুদ্ধে। তিনি পার্শ্ববর্তী নেহালপুর ইউনিয়নের মৃত মোহাম্মদ আলীর ছেলে। আলীপুর-গোবরডঙ্গা গ্রামের সাধারন লোকজন নেহালপুর বাজারে বাজার করতে আসলে তাদেরকে সিরাজ মোল্যার পোষ্য সন্ত্রাসী বাহিনী হুমকি-ধামকি দিচ্ছে বলে অভিযোগ। ফের জমি লীজ নিতে মরিয়া সিরাজ মোল্যা স্থানীয় কতিপয় দালালদের ম্যানেজ করে ঘের নিতে মাঠে নেমেছেন। সিরাজ মোল্যা বহিরাগত সন্ত্রাসীদের নিয়ে জমি মালিকদের হুমকি-ধামকি দিয়ে চলেছেন বলে অভিযোগ। এ নিয়ে যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা করছে এলাকাবাসি।

এদিকে চলতি পহেলা বৈশাখ থেকে চুুক্তির মেয়াদ শেষ হওয়ার পর আলীপুর গ্রামের অপূর্ব কুমার বিশ্বাসের সাথে নতুন করে জমি লীজের চুক্তিনামা করেন অধিকাংশ জমি মালিক। বিষয়টি আঁচ করতে পেরে তেলে বেগুনে জ্বলে উঠেছেন সিরাজ মোল্যা। ইতোমধ্যে উদয় ও সুমন নামের দুই জমি মালিকককে মারপিটসহ শিক্ষক প্রণয় রায় ও সুমন রায় নামে কয়েকজন জমি মালিকের নামে মিথ্যা মামলা করেছেন সিরাজ মোল্যা। জানা যায়, প্রায় বছর নয় আগে প্রতি বিঘা জমি ৮ হাজার এবং ২৭ হাজার টাকার চুক্তিতে ওই ইউনিয়নের গোবরডাঙ্গা-আলীপুর গ্রামের মধ্যেবর্তী ভ’ষণার বিল প্রায় দেড়শ’ বিঘা জমিতে মাছের ঘের করে আসছেন সিরাজ মোল্যা। দেড়শ’ বিঘা এ মাছের ঘেরের ভেঁড়ি ও খাল (ক্যানেল) ভূক্ত জমি মালিকদের বিঘা প্রতি ২৭ হাজার টাকা দেয়া হয়। মাছের ঘের করেই উল্থান ঘটেছে সিরাজ মোল্যার। তিনি এখন কোটিপতি বনে গেছেন। উপজেলার পূর্বাঞ্চলের মাছের ঘেরে ঝামেলা হলেই অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সিরাজ মোল্যার কারনেই ঘটে বলে অভিযোগ। মাছের ঘেরে ফের যে কোন উপায় মাছের ঘের করতে বহিরগত সন্ত্রাসীদের জড়ো করে জমি মালিকদের প্রতিনিয়ত হুমকি দিচ্ছেন বলে অভিযোগ।

অপূর্ব কুমার বিশ্বাস জানান, তিনি ১৭৬ জমি মালিকের মধ্যে প্রায় দেড়শ’ জনের কাছ থেকে প্রতি বিঘা জমি ৯ হাজার ও ৩০ হাজার টাকা হারে চুক্তি নামা করেছেন। বাকীরাও জমি দিবে বলে তার দাবি। জমি মালিক স্বপন বিশ্বাস, আনন্দ বিশ্বাস, সুমন দাস, অসীম মন্ডলসহ একাধিক জমি মালিকের অভিযোগ, সিরাজ মোল্যার সাথে নতুন করে জমি লীজের চুক্তিনামা না করায় তাদেরকে মামলা-হামলার হুমকি দেয়া হচ্ছে। কিন্তু এবার কোনভাবেই তারা সিরাজ মোল্যাকে জমি দিতে নারাজ। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান শেখর চন্দ্র রায় বলেন, ৯ বছর আগে এ এলাকার লোক সিরাজ মোল্যাকে ডেকে এনে জমি লীজ দেয়। কিন্তু সেই আন্তরিকতা ধরে রাখতে পারেননি সিরাজ। গত চৈত্র মাসে ঘের মালিকদের সভা হয়। সেখানে সিংহভাগ জমি মালিক অপূর্বকে জমি দেয়ার পক্ষে মত দেয়। এক পর্যায় আর ঘের করবে না বলে ঘোষণা দিয়ে ঘেরের সব কাগজপত্র শিক্ষক প্রশান্ত কুমারের দিয়ে স্থান ত্যাগ করেন সিরাজ মোল্যা। প্রশান্ত কুমার জানান, সিরাজ মোল্যা আর ঘের করবেন না বলে পুরাতন জমি লীজের চুক্তিনামা তার কাছে জমা দিয়ে স্থান ত্যাগ করেন। অবশ্য সপ্তাহখানেক পরে ফের কাগজপত্র নিয়ে যান সিরাজ মোল্যা। মাছের ঘেরে যেখানে সমস্যা সেখানেই সিরাজ মোল্যার উপস্থিতি। কাউকে হুমকি-ধামকি দেয়ার অভিযোগ অস্বীকার করে সিরাজ মোল্যা বলেন, তার ঘেরের পাড় কেটে দিয়ে মাছ বের করে দেয়ায় তিনি মামলা করেছেন।

 

 

 

 178 total views,  2 views today


Tufan Convention Center & Resort Lack Views || Satkhira

তুফান কনভেনশন সেন্টার ও রিসোর্ট সাতক্ষীরা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved © 2020 songkalpo.Com
Design & Developed BY CodesHost Limited